About

কলেজ পরিচিতি

কলেজ লাইব্রেরি :

প্রশাসনিক ভবনের তৃতীয় তলায় বর্তমানে একটি বৃহৎ লাইব্রেরি রয়েছে। শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরি কার্ডের মাধ্যমে এ লাইব্রেরিতে নিয়মিত বই পড়ার সুযোগ পায়। এছাড়াও ছাত্রীরা ক্লাশের অবসরে লাইব্রেরির পাঠকক্ষে পড়াশুনা করতে পারে। কলেজ লাইব্রেরিতে ত্রিশ সহস্রাধিক বই রয়েছে এবং রয়েছে একটি সুন্দর মুক্তিযুদ্ধ কর্ণার। কলেজ লাইব্রেরি ছাড়াও যে সকল বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর কোর্স চালু রয়েছে সে সকল বিভাগের সেমিনারে পর্যাপ্ত সহায়ক পুস্তক রয়েছে।

 

শিক্ষার্থীদের কমনরুম :

কলেজে ছাত্রীদের জন্য একটি কমনরুম রয়েছে। ছাত্রীরা ক্লাশ বিরতির সময় এখানে উপস্থিত হয়ে অবসর বিনোদন, দৈনিক পত্রিকা পাঠ এবং বিভিন্ন অন্তঃকক্ষ ক্রীড়ায় নিয়মিত অংশগ্রহণ করতে পারে। এখানে ছাত্রীদের নিয়মিত উপস্থিতি ও অংশগ্রহণ শিক্ষার পরিবেশকে আরও আনন্দমুখর ও সজীব রাখে।

বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি) 

কুমুদিনী সরকারি কলেজে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের একটি প্লাটুন রয়েছে। সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা ছাড়াও এ কোরের সদস্যরা সমাজ ও দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন ও সেবামূলক কাজে অংশগ্রহণ করে থাকে।

 

গার্লস-ইন-রোভার :

২০০১-২০০২ শিক্ষাবর্ষ থেকে কুমুদিনী সরকারি কলেজে ‘গালর্স-ইন-রোভার’ ইউনিটের কার্যক্রম চালু হয়। সেবার ব্রত নিয়ে এরা এদেশের সেবায় নিয়োজিত।

 

ক্রীড়া :

ক্রীড়া ক্ষেত্রে কুমুদিনী সরকারি কলেজের ছাত্রীদের ভূমিকা উজ্জ্বল। স্থানীয় পর্যায়, জেলা পর্যায় এমনকি বিভাগীয় পর্যায়েও এ কলেজের ছাত্রীদের রয়েছে সদর্প পদচারণা ও একরাশ সাফল্য। ২০০৩-০৪ সালে টাঙ্গাইল জেলা আন্তঃকলেজ (উ.মা) ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় কলেজটি দলগত চ্যাম্পিয়ন হয়। গত ২০১০-১১ সালে কলেজটি ভলিবলে আন্তঃজেলা, জোনাল ও ঢাকা বিভাগীয় পর্যায়ে দলগত চ্যাম্পিয়ন (মহিলা) হওয়ার গৌরব অর্জন করে এবং ২০১১-১২ সালে ব্যাডমিন্টন, ভলিবল ও হ্যান্ডবলে জেলা চ্যাম্পিয়ন হয় কলেজটি। সর্বশেষ ২০১২-১৩ সালে ভলিবল প্রতিযোগিতায় বিভাগীয় পর্যায়ে দলগত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। ২০১৫-১৬ সালে ঢাকা বোর্ড বিভাগীয় পর্যায়ে ক্রিকেট চ্যাম্পিয়ন।২০১৫-১৬ সালে জেলা জোনাল পর্যায়ে ভলিবল টিম গঠন করে। ঢাকা বোর্ড আন্ত কলেজ (উচ্চ মাধ্যমিক) খেলাধুলা ও ক্রীড়া প্রতিয়োগিতায় ২০১৬-১৭ মহিলা জোন চ্যাম্পিয়ন (জামালপুর, শেরপুর, টাঙ্গাইল)। ডিজিটাল মেলা ২০১৮ এটুআই এ ৩য় স্থান অর্জন। মেধাই সম্পদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ভবিষ্যৎ ৩৯তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলা ২০১৮ সিনিয়র গ্রুপ এ ৩য় স্থান টাঙ্গাইল সদর, টাঙ্গাইল। ৬ষ্ঠ জাতীয় কমডেকা-২০১৮ হাইমচর, চাঁদপুর, টেকসই সমাজ বিনির্মানে স্কাউটিং, সাফল্যের সাথে অংশগ্রহণের স্বীকৃতি স্বরুপ। ২০১৭ সালে ঢাকা বোর্ড আন্ত:কলেজ (উচ্চ মাধ্যমিক) খেলাধুলা ও ক্রীড়া প্রতিয়োগীতায় টাঙ্গাইল জেলায় ক্রিকেট মহিলা চ্যাম্পিয়ন। জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৭ শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান কলেজ টাঙ্গাইল সদর। বিশ্ব রেড ক্রোস/রেড ক্রিসেন্ট দিবস ২০১৮ এ শ্রেষ্ঠ কলেজ ইউনিট। এছাড়া অন্যান্য ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিশেষ করে ক্রিকেটে কুমুদিনী সরকারি কলেজের গৌরবোজ্জ্বল সাফল্য রয়েছে।

 

সাহিত্য ও সংস্কৃতি :

প্রতি বছরই কুমুদিনী সরকারি কলেজ সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। কলেজের ছাত্রীরা স্থানীয় পর্যায়ে, জেলা পর্যায়ে, বিভাগীয় পর্যায়ে এবং জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের পরিচয় দিয়ে থাকে। ২০০৭ সালে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘এটিএন বাংলা’ আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ‘যুক্তি কথন’ এ অংশ নিয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ রাইফেলস পাবলিক কলেজ, ঢাকা কে পরাজিত করে। ২০১৬ সালে নবম জাতীয় পর্যায়ে বিতর্ক কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে ও বিভিন্ন জেলায় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে গৌরব অর্জন করে। এছাড়াও ‘সুশাসনের জন্য নাগরিক’ আয়োজিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় জেলা চ্যাম্পিয়ন হয়।

 

বিভিন্ন জাতীয় দিবস :

কুমুদিনী সরকারি কলেজে বিভিন্ন জাতীয় দিবস যেমনÑ বিজয় দিবস, শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, স্বাধীনতা দিবস, বর্ষবরণ, বর্ষাবরণ এবং বসন্তবরণ যথাযোগ্য মর্যাদায় ও আনন্দঘন পরিবেশে নিয়মিতভাবে উদযাপিত হয়।

কলেজ ইউনিফর্ম :

কুমুদিনী সরকারি কলেজে অধ্যয়নরত প্রত্যেক ছাত্রীকে বাধ্যতামূলকভাবে কলেজ পোশাক (সাদা ওড়নাসহ সাদা সালোয়ার ও কামিজ)/সাদা বোরকা পরিধান করতে হয়। এটি কলেজ শৃঙ্খলার অন্তর্ভুক্ত। কলেজ ইউনিফর্ম পরিধান করে কলেজের ভেতরে বা বাইরে কোন প্রকার অশোভন বা শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজ করা যাবে না। যে কোন ধরনের শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে কলেজ হতে বহিষ্কারের বিধান রয়েছে।

ছাত্রীনিবাস :

ছয়শ’ আসন বিশিষ্ট কুমুদিনী সরকারি কলেজের সুদৃশ্য তিনটি পৃথক ছাত্রীনিবাস রয়েছে। আবাসিক ছাত্রীদের সুচিকিৎসার জন্য একজন অভিজ্ঞ মহিলা এমবিবিএস ডাক্তার নিয়োজিত আছেন। কলেজ ছুটিকালীন সময়ে আবাসিক ছাত্রীদের বাড়ি যাবার সুযোগ রয়েছে। 

 

কলেজের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রণদাপ্রসাদ সাহা (১৮৯৬-১৯৭১)

কলেজের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রণদাপ্রসাদ সাহা (১৮৯৬-১৯৭১)

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সমাজসেবী, শহীদ বুদ্ধিজীবী দানবীর রায় বাহাদুর রণদা প্রসাদ সাহা ১৮৯৬ সালে ১৬ নভেম্বর, ঢাকা জেলার সাভারের উপকন্ঠে কাছৈর গ্রামে মাতুলালয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম দেবেন্দ্রনাথ পোদ্দার এবং মাতার নাম কুমুদিনী দেবী। তাঁর পৈতৃক নিবাস টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুরে। রণদা প্রসাদ চাকুরি শুরু করেছিলেন যুদ্ধক্ষেত্রে অসুস্থ ও আহতদের সেবা প্রদানের মাধ্যমে। একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরও তিনি সমাজের বিভিন্ন সেবা প্রদান অব্যাহত রাখেন। ১৯৪৩ খ্রি. তিনি কুমুদিনী সরকারি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়া তিনি প্রতিষ্ঠা করেন কুমুদিনী হাসপাতাল, দেবেন্দ্র কলেজ, ভারতেশ্বরী হোমস এর মত মহতী প্রতিষ্ঠান। রণদা প্রসাদ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট বর্তমানেও বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। ১৯৭১ সালের ৭ মে পশ্চিম পাকিস্তানি বাহিনীর সহযোগীরা রণদা প্রসাদ সাহা ও তাঁর পুত্র ভবানী প্রসাদ সাহাকে ধরে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে তাঁদের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। রণদা প্রসাদ সাহার প্রতিষ্ঠিত কুমুদিনী কলেজ ১৯৭৯ খ্রি. জাতীয়করণ হয় এবং বর্তমানে নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে সাফল্যের শীর্ষে অবস্থান করছে।

Pre-Foundation History

The history of female education in the Indian subcontinent is not glorious at all. The question of female education has long been ignored by the societies of this locality. Moreover, social mindset towards female education was utterly negative and depressing and women were almost confined within the four walls and were compelled to do household chores merely. Social prejudice, ignorance, bigotry, familial restrictions etc stood in the way of female education. There have been mountain-high hurdles in the way of female education though women constituted half of the total population. As a result of it, women lagged behind in all regards and overall social development was intensely impeded.

 The reality that without female education comprehensive national development is impossible was empirically perceived by Principal Ebrahim Khan, an educationist and prolific writer. He, accordingly, encouraged R.P. Shaha, an altruistic social worker, famous businessman and philanthropist, to set up a female college in Tangail Mohukuma (subdivision of Mymenshingh district). Principal Ebrahim Khan alongwith the local elites and the enlightened of Tangail earnestly urged R.P. Shaha, a man of captivating personality, for founding the college. While on a visit to Tangail, R.P. Shaha was reminded of the importance of setting up a female college in Tangail. The great harbinger of humanity found it appropriate to contribute to the society once again and to do something for the progress of womenfolk. The well of human kindness rose in him and he enhanced his bounteous hands of cooperation. He named the college after his loving mother Kumudini whom he lost at the age of seven only. Consequently, Kumudini College came into being in 1943. 

The Initial Journey of Government Kumudini College

The foundation history or the initial journey of Kumudini College is interestingly colourful and eventful. R.P. Shaha put forth his utmost devotion and labour to make the project a success. Preliminary journey of the college was not at all smooth and favourable. Dearth of female students and the societal reluctance made the initiative harder. Enormous efforts were made to collect female students and to inspire them. R.P. Shaha declares- ‘My institutions are like pilgrimage to me’. In consistent with this motto, he started working for the college.

In the year 1943, the classes of Kumudini College were held at the house of Premaditta Ghosh of Tangail town. Subsequently, arrangements were made to hold classes at a go down possessed by Jatindranath Roy Chowdhury. Till the time of shifting the college to the present location, classes were held there. In order of the establishment of women’s colleges in the country, Kumudini College was the third one after Dhaka Eden College and Sylhet Women’s College. Srimati Yotirmoye Ganguly was the first principal of the college. Whatever the history, R.P. Shaha founded the college with a noble vision to spread out the light of education among the girls of this locality as well as across the country.

Recognition From Bangabandhu

The Father of The Nation, Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman, in his famous book Ausamapta Atmajiboni /Unfinished Memoirs (P-76/2012/UPL Publication) refers to R.P. Shaha with great admiration for his commitment to the  establishment Kumudini College. ‘Kumudini College exists at the contribution of him(R.P. Shaha)’- Bangabandhu made the invaluable comment as to the founding history of Govt. Kumudini College.

Location

The college is located at the central point of the town of Tangail. It is situated at Biswas Betka. Marked by its exquisitely beautiful natural sights, the college has about 14 acres of land area. The main campus is surrounded by a high wall. In the campus, there is a spacious playground and a spectacular pond with rows of myriad trees on four sides.

Superstructure

There is a three-storeyed Administrative Building, a two-storeyed long Intermediate Building, two three-storeyed Academic Buildings and a three-storeyed Masters Building in the main campus. Besides the buildings, there are also three wide corrugated iron houses in the college campus to hold classes and examinations. All the academic activities of Higher Secondary level, Honours, Masters and Degree(Pass) programmes of 16 departments  are being accomplished in the rooms of these buildings and houses. The central library of the college is located at the 2nd floor of the Administrative Building.

Hostel

The hostel of the college is separated from the main campus by a wall. At the core of nature, there are three spacious buildings for the hostel of the college to accommodate approximately 800 students of Higher Secondary, Honours and Masters levels. 

Teachers

A host number of skilled, qualified and experienced teachers are engaged in rendering education to the students of Govt. Kumudini College. There are 27 posts of lecturer, 17 posts of assistant professor, 8 posts of associate professor in the college. The Principal and the Vice Principal hold the post of professor.

Co-Curricular Activities

The college has already earned immense reputation for its co-curricular activities. Traditionally, the college is the seat of cultural activities. National Days are observed with precision by the students of Govt. Kumudini College. Moreover, students’ participation in sports, art and culture, literature, Girls’ Guide and in Women’s Scout has heightened the image of this institution exponentially. Every year students of the college take part in the Display programme of Victory Day and Independence Day at Tangail Stadium organized by District Administration.

Govt. Kumudini College and National Movements

The students and the teachers of Govt. Kumudini College are also part of the glorious national movements of the country. They raised their fiery voice against the injustice and oppression of the then Pakistani Government. Students of the college spontaneously took part in the Language Movement of 1952 and in the Liberation War of 1971. The names of the then student leaders like Khandoker Rubi and Hasina Khan are mingled with our glorious Language Movement. The college will always be proud of the martyred teacher, Abdus Sattar, of the Deptt. Of History who made the supreme sacrifice for the greatest cause of our Liberation War.

Nationalization

The college was nationalized in 1979. Upto the time of its nationalization, all the institutional expenditures of the college were afforded by Kumudini Welfare Trust.

 

Digitalization Process

In compliance with the current government’s vision, almost all possible measures have already been taken to digitize the college campus. The college administration and a good number technologically skilled teachers have been working painstakingly to bring the opportunities of information and technology to the students of the college. A few of the classrooms are now digitalized and the entire campus has been brought under WIFI networking system. Teachers’ in-house training on IT is also going on to impart more efficacious classes taking the advantages of information and technology. In addition to it, extensive steps are being taken to open the E-mail address of about 6500 students of the college. Students have already started reaping the benefits from the Sheikh Rasel Digital Lab which has been set up at the 2nd floor of the academic building.

Description of The Infrastructures at A Glance

Infrastructures

Description

Type of college

Girls’ college.  

Total area

14.13 acre

Total open space

0.112 acre

Play-ground

1.00 acre

Pond/water body

3.00 acre (One pond)

Garden

2.00 acre

Boundary wall around college campus

3429 feet

Boundary wall around Principal’s residence

853 feet

Kumudini Govt. College, Tangail
Number of Students 2018

Sl. No

Subjects

Annual intake capacity

2018-19

2017-18

1.       

Humanities

750

750

710

2.       

Business Studies

300

265

286

3.       

Science

600

542

543

Total

1650

1557

1539

Sl. No.

     Subjects

Annual intake capacity

No. of Student Enrollment (year-wise)

1st

2nd

3rd

4th

Total

Total Female

1.       

Bangla

100

97

78

88

55

318

318

2.       

Botany

95

94

92

92

64

342

342

3.       

Chemistry

50

49

49

49

4.       

Economics

120

119

101

71

57

348

348

5.       

English

120

117

106

98

61

382

382

6.       

Geography

80

73

72

55

53

255

255

7.       

History

100

88

88

53

54

283

283

8.       

Home Economics

100

86

57

26

26

189

189

9.       

Islamic History

100

94

65

40

25

224

224

10.   

Mathematic

115

113

80

80

60

240

240

11.   

Philosophy

120

98

36

70

30

234

234

12.   

Physics

115

109

75

65

55

306

306

13.   

Political Science

120

120

120

95

96

431

431

14.   

Social Work

150

148

120

108

107

484

484

15.   

Sociology

120

119

107

97

57

380

380

16.   

Zoology

50

50

39

89

89

Total

1655

1574

1236

1038

800

3512

3512

Sl. No.

Subjects

Annual Intake Capacity

No. of Student Enrollment

No. of Female Student

1.       

Bangla

50

12

12

2.       

Economics

50

27

27

3.       

English

50

0

0

4.       

Geography

50

14

14

5.       

Islamic History

50

20

20

6.       

Political Science

100

48

48

7.       

Social Work

150

71

71

8.       

Sociology

50

36

36

Total

550

228

228

Sl. No

Subjects

Annual intake capacity

2018-19

1.       

BA

300

 

2.       

BSS

300

 

3.       

BSc

300

 

Total

900